war criminals

এ প্রজন্মের অগ্নিকন্যারা

:রূপ-কেয়ার ডেস্ক:
আমাদের তরুণ প্রজন্ম আজ যেন মেতেছে একাত্তরের চেতনায়। শাহবাগে যুদ্ধাপরাধীদের ফাঁসির দাবিতে সাধারণ মানুষের এই গণজাগরণ আমরা যারা একাত্তর দেখিনি তাদের মনকে দেশপ্রেমে পূণরোজ্জীবিত করে তুলছে। এই আন্দোলনে নারীদের স্বতস্ফুর্ত অংশগ্রহণ এবং অগ্রগামী ভূমিকা আবারো মনে করিয়ে দেয় মুক্তিযুদ্ধে বঙ্গকন্যাদের অসামান্য অবদানের কথা।

গত চারদিন ধরে এই আন্দোলন চত্বর মাতিয়ে রেখেছেন এ প্রজন্মের দৃপ্ত কন্ঠের ১৪জন বীর বঙ্গ কন্যা। আন্দোলনকারী জনতার কাছে এরা ‘বারুদকন্যা বা অগ্নিকন্যা’ নামে পরিচিত। তাদের মুহুর্মুহু স্লোগানে শাহাবাগসহ সারাদেশে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ছে। এইসব বীর কন্যারা গত চারদিন ধরে শাহবাগ চত্বরে রাত-দিন কাটাচ্ছেন এক কাপড়ে। এই ১৪ জন অগ্নিকন্যা হলেন: লাকি আক্তার, মুক্তা বাড়ৈ, প্রগতি বর্মণ তমা, প্রীতিলতা, সুস্মিতা রায় সুপ্তি, আলিস, নওরোজ, অনিন্দা, তানিয়া, সবিতা সরকার মনি, জয়শ্রী রায়, সুমনা, আঁখি এবং আমেনা আক্তার রিনা।

এরা সবাই প্রগতিশীল ছাত্র সংগঠনের নেত্রী। ইডেন মহিলা কলেজের ছাত্রী মুক্তা বাড়ৈ জানান, বসে থাকা একেবাড়েই অসম্ভব। রক্তে আগুন জ্বলছে। বাংলাদেশ যুদ্ধাপরাধীর দেশ হতে পারেনা।

কাদের মোল্লার ফাঁসির দাবিতে তিন দিন ধরে অবিরাম স্লোগান দিয়ে চলেছেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী লাকী। এক হাতে মাইক্রোফোন আর মুষ্টিবদ্ধ অন্য হাত ঊর্ধ্বে ছুড়ে স্লোগানে স্লোগানে উজ্জীবিত করছেন সমবেতদের। তাঁর উচ্চকিত কণ্ঠ প্রতিধ্বনিত হচ্ছে হাজারো কণ্ঠে। এই অগ্নিকণ্ঠীকে উদ্দেশ করে সমবেত অনেককেই বলতে শোনা গেছে, ‘স্যালুট লাকী আক্তার!’ চিহ্নিত যুদ্ধাপরাধীদের নামের আদ্যক্ষর দিয়ে তাঁর বানানো স্লোগান এখন দেশজুড়ে। ব্লগ, সামাজিক বিভিন্ন যোগাযোগ মাধ্যমে এটি ছড়িয়ে পড়েছে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তেও। লাকীর কণ্ঠে ‘ক’-তে কাদের মোল্লা শোনার সঙ্গে সঙ্গে সবাই গর্জে উঠছে ‘তুই রাজাকার তুই রাজাকার’ ধ্বনিতে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রীতিলতা ও সুস্মিতা সুর তুলছেন ’৭১-এর সময় গাওয়া গান। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক রোবায়েত ফেরদৌস ও সেগুনবাগিচা থেকে আসা তরুণী কাকলী জানালেন, মধ্য রাতেও এসব অগ্নিকন্যা অবিরাম স্লোগান দিয়ে চলছেন।

বামপন্থী নেতা জুনায়েদ সাকী জানালেন, অসাধারণ তাদের স্লোগান। মহাসমাবেশে তাদের কন্ঠ আরো সোচ্চার হয়ে উঠেছে। এরকম হাজার হাজার বঙ্গকন্যাদের পদচারণায় মুখরিত আজ শাহবাগ চত্বর। এ দৃশ্য দেখে সবার মুখ থেকে সাবলীল ভাবে চলে আসে – “বঙ্গকন্যা তোমায় সালাম”

facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedin