ঐশ্বরিয়ার গায়ে হাত তোলা নিয়ে সালমানের মন্তব্য

সাক্ষাৎকারে ঐশ্বরিয়ার প্রতি সালমানের নির্যাতন অভিযোগে নিয়ে জানতে চাওয়া হলে এ অভিনেতা বলেন।

একে একে প্রকাশ্যে আসছে বলিউডের পুরোনো যৌন নিপীড়নের লুকিয়ে থাকা কিছু ঘটনা। এরই মধ্যে ফুঁসে উঠেছে ভারতীয় শিল্পীদের একাংশ। কয়েকজন বলিউড অভিনেতা ও নির্মাতার বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার অভিযোগ তুলেছেন কিছু অভিনেত্রী। অভিনেতা নানা পাটেকরের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলেছেন অভিনেত্রী তনুশ্রী দত্ত। অন্যদিকে নির্মাতা বিকাশ বহেলের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলেছেন অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউত।

গলফ নিউজের প্রতিবেদনে জানানো হয়, ঠিক এমন সময় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেগুলোতে নতুন করে ভাইরাল হয়ে পড়েছে বলিউড ‘ভাইজান’ সালমান খানের একটি পুরনো ভিডিও। যে ভিডিওতে উঠে আসে সালমানের বিরুদ্ধে সাবেক বিশ্ব সুন্দরী ঐশ্বরিয়া রাইয়ের শারীরিক নির্যাতনের অভিযোগ।

একটা সময় ঐশ্বরিয়া ও সালমানের প্রেমের কথা কম বেশি সবাই জানতেন। এ তারকা জুটির প্রেম নিয়ে পত্র-পত্রিকাতেও কম খবর রটেনি। তাদের সাড়া জাগানো প্রেমের ভাঙনের খবরও জানাতেন বলিউডপ্রেমীদের অনেকেই। ভাঙনের পর সালমানের বিষয়ে ঐশ্বরিয়ার কাছে জানতে চাওয়া হলে তিনি জানান, বলিউডের অন্য সহকর্মীদের সঙ্গে তার সম্পর্ক আছে ভেবে তাকে সন্দেহ করতেন সালমান। সন্দেহের জের ধরে ঐশ্বরিয়ার ওপর মানসিক ও শারীরিক নির্যাতন চালাতেন।

ওই সময় সালমানকে এ বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে সালমান ওই নির্যাতনের বিষয়টি অস্বীকার করে জানান, তিনি যদি সত্যিই কোনো নারীর ওপর হাত তুলতেন তাহলে, সেই নারীর পক্ষে তার হাতে মার খেয়ে বেঁচে থাকাটা অসম্ভব।

এর আগে আরেকটি সাক্ষাৎকারে অনুষ্ঠানে ঐশ্বরিয়ার প্রতি তার নির্যাতন অভিযোগে নিয়ে জানতে চাওয়া হলে সালমান তার সামনে থাকা টেবিলটিতে জোরে আঘাত করে ওই টেবিলটি ভেঙে ফেলেন। এরপর তিনি বলেন, ‘আমি কোনো নারীকে আঘাত করলে তিনি নিশ্চয়ই সুস্থভাবে বেঁচে থাকতেন না।’

তখনকার সময় ঐশ্বরিয়ার প্রতি সালমানের এমন অশোভন আচরণ নিয়ে ঘোর প্রতক্রিয়া জানিয়ে ছিলেন অনেকেই।