চোখের ডার্ক সার্কেল দূর করতে

|নুসরাত নীলিমা|

rupcar_dark circle 0

আমাদের মুখের অন্যান্য সমস্যা যতো না দৃষ্টিকটু, তার চেয়ে চোখের ডার্ক সার্কেল বা কালো ছাপ বেশি সৌন্দর্যহানী করতে পারে । চোখের চারপাশে ডার্ক সার্কেল হতে পারে অতিরিক্ত দু:শ্চিন্তা বা ঘুম কম হলে। তবে যথেষ্ট ঘুমানোর পরও অনেকের ডার্ক সার্কেল পিছু ছাড়েনা। যারা চোখের ডার্ক সার্কেল নিয়ে চিন্তিত তারা নিচের কিছু প্রাকৃতিক পন্থা অবলম্বন করতে পারেন তা দূর করতে।rupcar_dark circle6

 

শশার টুকরো ব্যবহার:

শশার টুকরো বহুকাল থেকেই চোখের চারপাশের ত্বকের কালোভাব দূর করতে এবং আকর্ষনীয় করতে ব্যবহৃত হয়ে আসছে। আপনার চোখ বন্ধ করে দুই চোখে দুই টুকরো শশা দিয়ে ১০-১৫ মিনিট রাখুন। এটি দৈনিক ব্যবহার করুন।

 

ঠান্ডা টি-ব্যাগ ব্যবহার:

টি ব্যাগ ব্যবহার শেষে একঘন্টা ফ্রিজে রেখে ঠান্ডা করে আপনার চোখের উপর দিয়ে প্রায় ১০-১৫ মিনিট শুয়ে থাকুন। টি ব্যাগের মধ্যে ট্যানিন নামক একটি উপাদান আছে, যা আপনার চোখের চারপাশের ফোলা ভাব কমাবে এবং কালচে ভাব দূর করবে।

 

বরফের টুকরো ব্যবহার:

বরফের টুকরো একটি কাপড় দিয়ে মুড়িয়ে চোখের উপর ১০-১৫ মিনিট ধরে রাখুন (অল্প অল্প করে যতোক্ষণ সহ্য করতে পারেন)

 

লবণ পানি ব্যবহার:

দুই কাপ পানিতে সামান্য (এক চা চামচের ৪ ভাগের একভাগ) লবণ মেশান। এই দ্রবণটি কোন ড্রপার বা সরু নল যুক্ত বোতলের সাহায্যে নাকের একটি ছিদ্রের মধ্যে প্রয়োগ করুন। মাথাটা একপাশে কাত করে এমনভাবে প্রয়োগ করুন, যেন দ্রবণটি একটি ছিদ্র দিয়ে প্রবেশ করে আরেক ছিদ্র দিয়ে বের হয়ে আসে। এতে আপনার নাকের ছিদ্র পরিস্কার থাকবে, ফলে চোখের বিভিন্ন বর্জ নাক দিয়ে বের হয়ে আসবে, যা চোখের ত্বককে সতেজ রাখে। যাদের নাক বন্ধ হয়ে থাকে তারা এটি ব্যবহার করলে উপকার পাবেন।

 

আলু থেতো ব্যবহার:

কাচা আলু খোসা ছাড়িয়ে থেতো করে নিন। এবার চোখ বন্ধ করে থেতো করা আলু চোখের উপর দিয়ে ৩০ মিনিট শুয়ে থাকুন। এরপর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

 

ঠান্ডা চামচ ব্যবহার:

একটি চা চামচ ১০-১৫ মিনিট ফ্রিজে রেখে দিন। এবার চোখ বন্ধ করে এর উপর চামচটি যতক্ষণ ঠান্ডা থাকে ততক্ষণ ধরে রাখুন।

 

উপরোক্ত পদ্ধতিগুলো প্রতিদিন ব্যবহারের সাথে সাথে যথেষ্ট পরিমাণ ঘুম এবং দু:শ্চিন্তা মুক্ত থাকলে আপনার চোখের ডার্ক সার্কেল দূর হয়ে চোখ হয়ে উঠবে আকর্ষনীয় সুন্দর।

facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedin