slim1

জিরো ফিগার — কতদূর?

আসলে এ কথার জবাব দেয়াটা একটু কঠিন। বর্তমান সময়ে জিরো ফিগার কথাটার সাথে আমরা সুপরিচিত। হলিউড কিংবা বলিউডের নায়িকা এবং মডেলরা এই কাংখিত লক্ষ্যে পৌছানোর জন্য কত কসরতই না করছেন। অনেকে খাওয়া দাওয়া বন্ধ করে দিয়ে রীতিমতো মৃত্যুর দিকে ঢলে পড়ছেন এমন খবরও অহরহই শোনা যায়।
জিরো ফিগার বা যাই হোক স্বাস্থ্যকর একটি স্লিম শরীরই আমাদের কাম্য হওয়া উচিত, তা না হলে অসুস্থ্ শরীর নিয়ে ভুগতে হতে পারে।
আমাদের লাইফস্টাইল এবং খাবারের ধরণ পরিবর্তন করলে কাংখিত স্লিম ফিগার অবশ্যই অর্জন করা সম্ভব।
নিচের টিপসগুলো থেকে সাহায্য নিতে পারেন:

#  প্রথমেই আপনার মনকে শক্ত করতে হবে।

#  ভাজাপোড়া, মিষ্টি ও কার্বোহাইড্রেট জাতীয় খাবার প্রায় বন্ধ করে দিতে হবে।

#  প্রতিদিন ভোরে ঘুম থেকে ওঠার চেষ্টা করুন।

#  ঘুম থেকে উঠে এক গ্লাস পানি পান করুন।

#  ১৫ মিনিট পর এক কাপ চিনি ছাড়া চা পান করুন। সাথে এক-দুটি টোস্ট বা বিস্কুট খেতে পারেন।

#  চা পানের এক ঘন্টা পর সকালের নাশতা করুন। সকালের নাশতায় দু-তিনটি রুটি, একটি ডিম, সবজি ও সালাদ রাখুন।

#  দুপুরের ও সকালের খাবারের মাঝে ফল যেমন­ আপেল, পেয়ারা, কমলা ইত্যাদি খেতে পারেন।

#  শুধু দুপুরে একটু ভাত খাবেন। মধ্যাহ্নভোজে এক থেকে দেড় কাপ ভাত, এক কাপ ডাল, সবজি, এক টুকরো মাছ বা গোশতসহ ঝোল তরকারি ও সালাদ রাখুন।

#  রাতে আবার দু-তিনটি রুটি, সবজি, এক কাপ ডাল ও এক টুকরো মাছ বা গোশত খাবেন। সাথে এক কাপ দুধ রাখতে পারেন।

#  ওপরের খাদ্যাভ্যাসগুলো ছাড়া প্রতিদিন অবশ্যই আধঘন্টা থেকে এক ঘন্টা হাঁটার অভ্যাস গড়ে তুলুন। এভাবে যদি প্রতিদিন ওপরের অভ্যাসগুলো মেনে চলতে পারেন তবে স্বাস্থ্যসম্মত উপায়ে আপনি  স্লিম হতে পারবেন।

facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedin