জীবনসঙ্গিনী ও ভালোবাসার মানুষটিকে শ্রদ্ধা, ভালোবাসা ও সম্মান জানাবেন কীভাবে?

যাপিত জীবনে আমরা কত ভাবেই না নিজেদের প্রকাশের চেষ্টা করি। সে চেষ্টায় কখনো সফল হই, কখনো ব্যর্থ।
6f3a4bee-84ce-4dc7-bfb2-202af6d5ccc9


যাপিত জীবনে আমরা কত ভাবেই না নিজেদের প্রকাশের চেষ্টা করি। সে চেষ্টায় কখনো সফল হই, কখনো ব্যর্থ। এ নিয়ে অনেকের মাঝে দেখা দেয় ভুল বোঝাবুঝি। আর যেন ভুল বোঝাবুঝির সৃষ্টি না হয়, সে জন্য জীবনসঙ্গিনীর সঙ্গে কেমন আচরণ করতে হবে, কেমন হবে তার প্রকাশ আসুন জেনে নেওয়া যাক।
-> সঙ্গিনীকে সত্যিকার মন থেকে ভালোবাসুন, মোহ বা সামাজিকতার কারণে নয়।
-> সঙ্গিনীর মনকে বোঝার চেষ্টা করুন, তার ভালোলাগা, অপছন্দ জানার চেষ্টা করুন।
-> মেয়েটির ভালো বন্ধু হন, আন্তরিক হোন, তার সঙ্গে সব বিষয় নিয়ে মনখুলে আলোচনা করুন।
-> মেয়েটির আস্থা, ভরসা, বিশ্বাস করার একমাত্র মানুষ হওয়ার চেষ্টা করুন।
-> সঙ্গিনীকে দেওয়া কথা, promise সেগুলো মনে রাখুন এবং সেগুলো সব সময় রাখতে চেষ্টা করুন।
-> সঙ্গিনীটি পৃথিবীতে আপনাকে সবচেয়ে আপন ভেবে মনের কথা বলতে পারে নির্ভয়ে, সেই জায়গাটি তৈরি করুন তার মনের মধ্যে ।
-> মেয়েটির পরিবার, আত্মীয়-স্বজনকেও ভালোবাসুন তার মতো করে, তাদেরকেও আপনার আপনজন করে নিন ।
-> সঙ্গিনীকে আপনি সময় দিন, সব কাজের মাঝে তার খোঁজ রাখুন, তাকে সেটি বুঝতে দিন ।
-> সঙ্গিনীর মনের মধ্যে নিজের একটি স্থান তৈরি করুন, যাতে সঙ্গিনীও আপনাকে অনুভব করে ।
-> জীবনে যত যাই পরিস্থিতি আসুক, সঙ্গিনীকে কখনো অবহেলা, অযত্ন করবেন না।
-> সঙ্গিনীর ভালোবাসা, বিশ্বাসের মর্যাদা দিন, তাকে শ্রদ্ধা করুন ভালোবেসে।
-> সঙ্গিনীকে আপনার জীবনের অংশ ভাবুন, সে আপনার জীবনের সঙ্গে অঙ্গাঙ্গীভাবে জড়িত, জীবনের সব কিছুতে তাকে সঙ্গে রাখুন।
-> সঙ্গিনীর মনের মধ্যে যে ‘আমি’টা থাকে, সেই আমিটার সঙ্গী হতে চেষ্টা করুন।
-> সঙ্গিনীর মন খারাপ হলে তার পাশে থাকুন, তাকে সঙ্গ দিন, তার হাতটি ধরুন।
-> সঙ্গিনীর বিপদ বা কষ্ট, শোকের মুহূর্তে তাকে mental support দিন।
-> সঙ্গিনীর জীবনে আপনিও অনুপ্রেরণা হতে চেষ্টা করুন, তার সব কাজের মাঝে আপনার ভালোবাসা দিয়ে।
-> সঙ্গিনীর কাছে সবসময় স্বচ্ছ থাকুন, তার সঙ্গে আপনার জীবনের প্রতিদিনের সব ঘটনা শেয়ার করুন, মেয়েটির বিশ্বাসকে সবসময় মর্যাদা দিন ও সেটি ধরে রাখুন।
-> রাগ, ঝগড়া, অভিমান—সব জীবনের অংশ, এক দিনের মধ্যে সেটি দূর করে ফেলুন ।
-> ভুল বোঝাবুঝি হলে সেটি আপনার স্বীয় বুদ্ধি-বিবেক দিয়ে মিটিয়ে ফেলুন ।
-> প্রতিদিনের ব্যস্ত জীবনে একটু তার সঙ্গে পাগলামি, রোমান্টিক হোন কিংবা একটু হাসি-ঠাট্টা, দুষ্টুমি করুন—সবটাই আপনাদের ভালোবাসার জীবনের মিষ্টি একটা অংশ ভাবুন।