জেনে নিন ত্রিশের পরেও গ্লামারাস লুক ধরে রাখার কিছু উপায়

rupcare_skin-care-after-30

বয়সের সঙ্গে ত্বকেরও পরিবর্তন আসে। প্রয়োজন হয় বাড়তি যত্নের।
ত্রিশের পর ত্বকের কোষ গঠন প্রক্রিয়া ধীর হয়ে যায়। তাছাড়া ত্বকে বলিরেখা, রোদে পোড়া দাগ ইত্যাদিও বেশি দেখা দেয় এই সময় থেকে। তাই ত্বকের তারুণ্য দীর্ঘস্থায়ী করতে চাইলে যত্নশীল হতেই হবে।

জেনে নিন ত্রিশের পরও গ্লামারাস লুক ধরে রাখতে ত্বকের যত্নে নিয়মিত চর্চার কয়েকটি উপায়।

ত্বক পরিষ্কার করা ও ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার
‘ক্লিনজিং, টোনিং ও ময়েশ্চারাইজিং’, ত্বক পরিচর্যার সহজ এবং অপরিহার্য তিনটি ধাপ। প্রতিদিনের কাজের তালিকায় এই তিন কাজ ত্বক পরিষ্কার এবং সুন্দর রাখতে সাহায্য করে।

ত্রিশের পর এই নিয়ম আরও বেশি কড়াকড়িভাবে পালন করা উচিত। এই সময় হাইড্রক্সিল এসিডযুক্ত ফেইসওয়াশ ব্যবহার করাও দরকার। কারণ এটি ত্বকের কোষ গঠনে সাহায্য করে। এরপর ভালো মানের টোনার দিয়ে ত্বক পরিষ্কার করে নিতে হবে। শেষে ভিটামিন সি যুক্ত সিরাম বা ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করতে হবে। ত্বক শুষ্ক হয়ে থাকলে ত্বকে বলি রেখা বেশি পড়ে।

সানস্ক্রিন ব্যবহার
রোদে বের হওয়ার আগে যে কোন বয়সের নারী পুরুষ উভয়েরই সানস্ক্রিন ব্যবহার করার পরামর্শ দিয়ে থাকেন রূপবিশেষজ্ঞরা। তবে ত্রিশের পর এই ধাপকে আরও গুরুত্বের সঙ্গে নেওয়া উচিত। কারণ সূর্যের রশ্মি ত্বকে গুরুতর ক্ষতি করে থাকে। আর ত্রিশের পর এ ক্ষেত্রে আরও বেশি নজর রাখা উচিত। ময়েশ্চারাইজার যুক্ত এবং বেশি এসপিএফ-যুক্ত সানস্ক্রিন ব্যবহার করতে হবে।

রাতে বাড়তি যত্ন
রাতে আমাদের পুরো শরীর বিশ্রাম নেয়। আর এ সময় ত্বকের কোষগুলো সারাদিনের ঘাটতি পুষিয়ে নিতে বেশি কার্যকর হয়। তাই রাতে ময়েশ্চারাইজিং ছাড়াও ত্বকের বাড়তি কিছুটা যত্ন নেওয়া উচিত। বিশেষ করে ত্বকের যে সব অংশে সমস্যা রয়েছে সেখানে কিছুটা বেশি যত্ন নেওয়া যেতে পারে ঘুমাতে যাওয়ার আগে।

চোখের চারপাশে কালচে দাগ, ত্বকের বলিরেখা ইত্যাদির যত্ন নেওয়া উচিত রাতে। রাতে ক্যাফেইনযুক্ত আই-ক্রিম ব্যবহার করলে উপকার পাওয়া যাবে। আর ত্বককে বলি রেখা থেকে বাঁচাতে পারে এমন উপাদান ব্যবহার করতে হবে পুরো ত্বকের জন্য।

মাসে একবার ফেইশল
ফেইশল ত্বককে ভিতর থেকে পরিষ্কার করে সতেজ ও সুন্দর রাখতে সাহায্য করে। তাই ত্রিশের পর নিয়ম করে প্রতি মাসে অন্তত একবার ফেইশল করাতে হবে।

দাঁতের যত্ন
ধূমপান এবং অ্যালকোহলের কারণে দাঁত হলদেটে হয়ে যায়, তবে বয়সের সঙ্গেও দাঁতে হলদেটে ছাপ পড়ে। তাই ত্রিশের পর ডেন্টিস্টের কাছে গিয়ে দাঁত ব্লিচ করিয়ে নেওয়া যেতে পারে। এতে দাঁতের হলদেটেভাব কেটে যাবে।

শরীরের যত্ন নিন
ত্বকের যত্নে পাশাপাশি এই সময় শরীরের যত্নও নিতে হবে। পুরো শরীরে ত্বকের যত্ন নিতে হবে, শুধু মুখের ত্বকের যত্ন নিলে চলবে না। গোসল করার পর পুরো শরীরে ময়েশ্চারাইজার বা লোশন লাগিয়ে নিতে হবে। পায়ের গোড়ালি, হাঁটু, কনুইয়ের প্রতি বেশি যত্নশীল হতে হবে।

ত্বকের যত্ন বাড়তি পুষ্টি
শুধু বাইরের যত্ন ত্বকের সৌন্দর্যের জন্য যথেষ্ট নয়। প্রয়োজন ভিতর থেকে পুষ্টি। তাই ত্রিশের পর খাবারের তালিকায় পুষ্টিকর খাবার বেশি যুক্ত করতে হবে। খাবারের তালিকায় মাছ, বিশেষ করে সামুদ্রিক মাছ রাখতে হবে। তাছাড়া ফ্যাটি এসিড সমৃদ্ধ খাবার এই বয়সে বেশি জরুরি। এর সঙ্গে প্রচুর শাক সবজি ও ফলমূল খেতে হবে।