বন্ধু তালিকা থেকে যে ৮ ধরনের মানুষকে আজই বাদ দেবেন

amitumi_stay away from them

সব মানুষের সঙ্গে চলা আপনার জীবনের জন্য মোটেই ভালো নয়। কখনো প্রয়োজন হয় অযাচিত কিছু মানুষের সঙ্গ ত্যাগ করা। কিন্তু এ ধরনের মানুষের সংজ্ঞা পরিষ্কারভাবে না জানলে এটা করা মোটেও সহজ হয় না। তাই এ লেখায় দেওয়া আট ধরনের মানুষের বিষয় খেয়াল করুন। প্রয়োজনে এদের থেকে যতটা সম্ভব দূরত্ব বজায় রাখুন।

১. নেতিবাচক মনোভাবের মানুষ
নেতিবাচকতা কখনো ভালো ফল বয়ে আনে না। আর নেতিবাচক মনোভাব পোষণকারী বন্ধু কখনও আপনার জন্য ভালো কিছু করতে পারে না। কারণ তারা সব সময় নেতিবাচক থাকতেই পছন্দ করে। এ ধরনের মানুষরা কোনো বিষয়কে ইতিবাচক বা ভালোভাবে দেখতে অভ্যস্ত নয় বরং নেতিবাচকভাবেই দেখতে অভ্যস্ত। তারা এভাবে শুধু নিজের মনের শান্তিই দূর করে না, এতে অন্যের মনেও অশান্তি তৈরি করে। আপনি যতই ইতিবাচক হতে চেষ্টা করুন না কেন, এমন বন্ধু আপনাকে নেতিবাচক হতে বাধ্য করবে।

২. দুঃখবাদী
অনেক মানুষ আছে যারা কোনো কারণ ছাড়াই দুঃখ, ক্ষোভ ও হতাশায় ভুগে থাকে। সারাক্ষণ নিজের নানা বিষয় নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করতেই তারা ভালোবাসে। আর তাদের এ দুঃখের পেছনে সঠিক কোনো কারণ থাকে না। মূলত নিজেদের চরিত্রের কারণেই তারা এমনটা হয়। আর তারা তাদের আশপাশের মানুষকেও এ দুঃখের অংশীদার করে। ফলে এমন মানুষের পাশে থাকাটাও বিপজ্জনক। আপনার বন্ধুতালিকায় যদি এমন কোনো মানুষ থাকে তাহলে দ্রুত তাকে ত্যাগ করুন।

৩. বড়লোকি দেখানো মানুষ
এ ধরনের মানুষ প্রতিনিয়ত নানা তথাকথিত বড় বড় কার্যক্রম বা ‘বড়লোকি’ করে থাকে। নিজেদের অর্থ না থাকলে প্রয়োজনে অন্যের থেকে ধার করে হলেও এরা পার্টির আয়োজন করে। নিজেকে অনেক বড় করে জাহির করা এদের চরিত্রের অংশ। যদিও বাস্তবতা তার থেকে ভিন্ন। এমন মানুষ আপনার বন্ধুতালিকায় রাখা মানে নিজের বিপদ ডেকে আনা।

৪. আত্মকেন্দ্রিক
এ ধরনের মানুষের সব চিন্তাভাবনার কেন্দ্রে থাকে সে নিজে। সব বিষয়েই সে লাভ খোঁজে। নিজের ক্যারিয়ারের উন্নতি, সম্পদ কিংবা অর্থ কামানোই এমন মানুষের সব কাজের মূল উদ্দেশ্য। তারা যেকোনো কাজে নিজের নাম প্রকাশকেই গুরুত্ব দেয়। কাজটি অন্যরা করলেও তারা একে নিজের নামে চালানোর চেষ্টা করে। এমন চরিত্রের কেউ আপনার আশপাশে থাকলে দ্রুত তার থেকে যতটা সম্ভব দূরে যাওয়াই ভালো।

৫. ঝামেলা বাঁধানো মানুষ
এমন কোনো মানুষ দেখেছেন কি, যে সব সময় একটা না একটা ঝামেলা বাঁধাতে ভালোবাসে? এমন মানুষ ঝামেলা ছাড়া থাকতে পারে না। আইন ভঙ্গ করা কিংবা ইচ্ছাকৃতভাবে কাজের ব্যাঘাত ঘটানো এদের স্বভাব। আর এমন মানুষ আপনার থেকে যত দূরে রাখা যায় ততই ভালো।

৬. অতৃপ্ত মানুষ
কিছু মানুষ আছে যারা সবকিছু থাকার পরেও কখনো তৃপ্ত হয় না। এমন মানুষের যদি সব ভালো ভালো বিষয় থাকেও তারা তাতে তৃপ্তি পাবে না। তাদের সব সময় তাড়া করে ফেরে অতৃপ্তি। আর তাই তাদের সঙ্গে সুস্থ সম্পর্কও রাখতে পারে না কোনো স্বাভাবিক মানুষ।

৭. গ্রহণকারী
আপনার এমন কোনো বন্ধু আছে কি, যে শুধু গ্রহণ করে কিন্তু তার বিনিময়ে কিছু প্রদান করে না? এমন মানুষকে আপনি জন্মদিনে দারুণ সারপ্রাইজ দিলেও সে আপনার জন্মদিনের কথা স্মরণও করবে না। তার দুঃসময়ে আপনি যতই পাশে থেকে সহযোগিতা করেন, আপনার দুঃসময়ে তার নাগালও পাবেন না। কিন্তু কোনো বিপদে পড়লে আবার আপনার কাছে সাহায্য চাইতে একটুও কুণ্ঠা বোধ করবে না এমন মানুষ। আপনার বন্ধুতালিকায় এমন কোনো মানুষ থাকলে তাকে দ্রুত দূরে সরিয়ে দিন।

৮. অপছন্দের মানুষ
আপনার বন্ধুতালিকায় এমন কোনো মানুষ আছে কি, যে কিনা আপনার অপছন্দের কিন্তু এর সঠিক কোনো কারণ নেই। যদি এমন কেউ থেকে থাকে তাহলে তার সঙ্গে বন্ধুত্ব করার চেয়ে দূরে সরে যাওয়াই ভালো। কারণ এমন মানুষের সঙ্গে থাকলে আপনার মনে যে চাপ পড়বে তার পেছনে কোনো যুক্তিগ্রাহ্য কারণ নেই।

সূত্র: কালেরকণ্ঠ