বাতাস বিক্রির ব্যবসায় চীনের দুই বোন!

rupcare_selling air

এক ব্যাগ বাতাসের দাম ১৫ ইউয়ান (১৮৫ টাকা)। অবাক হওয়ার কিছু নেই। সতেজ বাতাস সংগ্রহ করা হয়েছে তিব্বতের পর্বতমালা থেকে। তাই চীনের বাজারে এই বাতাসের চাহিদাও বেশ।

বাতাস বিক্রির এই ব্যতিক্রমী ব্যবসা শুরু করেছেন চীনের গুয়াংডং প্রদেশের জিংইং শহরের দুই বোন। খবরটি জানিয়েছে দেশটির সংবাদমাধ্যম সাংহাই ইস্ট।

সংবাদমাধ্যমটি জানায়, চীনে বায়ুদূষণ সমস্যার কারণেই দুই বোনের বাতাস বিক্রির ব্যবসা রমরমা। অনলাইনের মাধ্যমে বাতাস বিক্রি করছেন দুই বোন।

কীভাবে প্ল্যাস্টিকের ব্যাগে বাতাস সংগ্রহ করা হয় তার একটি প্রামাণ্য ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছেড়েছেন এই দুই বোন।

এরই মধ্যে বায়ুদূষণে আক্রান্ত জিংইং শহরে ব্যাপক সাড়া ফেলেছে দুই বোনের ভিন্নধর্মী এই ব্যবসা। প্রতিদিন শতাধিক ব্যাগ বাতাস বিক্রি হচ্ছে বলে জানিয়েছেন তাঁরা।

যদিও চীনের সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে অনেকেই এই বাতাস বিক্রির সমালোচনা করেছেন। তাঁরা বলছেন, বাতাস সংগ্রহের প্লাস্টিকের ব্যাগগুলো পরিবেশবান্ধব নয়।

এদিকে সংবাদমাধ্যম সাংহাই ইস্টের দাবি, এই বাতাস বিক্রির ব্যবসা একেবারে নতুন নয়। বছরখানেক আগে দেশটির জিয়ান প্রদেশের বন বিভাগ বাতাস বিক্রি শুরু করেছিল। দুই লাখ ইউয়ান সরকারি অর্থ দেওয়া হয়েছিল এই কাজে। তখন কিনলিং পর্বত থেকে বাতাস সংগ্রহ করে বিক্রি করা হতো। আর ওই বাতাসের দাম ছিল প্রতি ব্যাগ ১৮ ইউয়ান।

facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedin