যেভাবে কম করবেন খাবারের অতিরিক্ত ক্যালোরি

rupcare_good food

একটি সুন্দর ছিমছাম দেহের স্বপ্ন তো সবাই দেখেন। একেবারে রোগবালাইহীন সঠিক ওজনের স্বপ্ন দেখাটা যত সহজ, প্রকৃতপক্ষে ওজনটাকে নিয়ন্ত্রণে রাখাটা এতো সোজা না। ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখার জন্য কত কিছুই না করতে হয় আপনাকে। বিশেষ করে অতিরিক্ত ক্যালোরিযুক্ত প্রিয় খাবারগুলোই কম কম খেতে হয়।

একটু চেষ্টা করলেই ওজনটাকে নিয়ন্ত্রণে রাখা যায়। খাবারের কিছু বিশেষ অংশ বাদ দিলে খাবার থেকে কমে যাবে অতিরিক্ত ক্যালোরি। জেনে নিন অতিরিক্ত ক্যালোরি এড়ানোর কিছু সহজ উপায় সম্পর্কে।

ফাস্ট ফুডের সাথে মেয়োনেজ ও চীজ এড়িয়ে চলা

ফাস্ট ফুডে যখন বার্গার কিংবা স্যান্ডউইচ খান তখন অর্ডার দেয়ার আগেই কাউন্টারে বলে নিন যে আপনি মেয়োনেজ ও চীজ খাবেন না। মেয়োনেজ ও চীজ বাদ দিলে ফাস্টফুডের ক্ষতিকর প্রভাব অনেকটাই কমে যায়। সেই সঙ্গে রক্ষা পাওয়া যায় ফ্যাট ও অতিরিক্ত ক্যালোরি থেকে।

অন্যান্য তেলের পরিবর্তে রান্নায় অলিভওয়েল ব্যবহার

রান্নায় ঘি, সয়াবিন তেল, ডালডা ইত্যাদি ব্যবহার করবেন না। এগুলোর বদলে বরং অলিভ ওয়েল ব্যবহার করুন। এতে হৃদপিন্ড ভালো থাকবে।

কোমল পানীয়ের বদলে জুস বা পানি

দোকানে গেলে কিংবা গরমের মাঝে বাইরে হাঁটাহাঁটি করলেই কোমল পানীয় খাওয়া হয়। অনেকেই আবার এনার্জি ড্রিঙ্ক খান। এই ধরনের পানীয়গুলো শরীরের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকর। সেই সঙ্গে এগুলোতে ক্যালোরির পরিমান অতিরিক্ত বেশি। তাই এগুলোর বদলে ফ্রেশ জুস বা পানি খাওয়ার অভ্যাসটা গড়ে ফেলুন

চা/কফিতে দুধ ও ক্রিম না খাওয়া

চা কিংবা কফির সাথে চেষ্টা করুন দুধ পরিহার করতে। দুধ চা এমনিতেও স্বাস্থ্যের জন্য কিছুটা ক্ষতিকর। তাই রঙ চা কিংবা ব্ল্যাক কফি খাওয়াটাই ভালো। সম্ভব হলে চিনিও এড়িয়ে চলার চেষ্টা করুন।

সালাদে আলু পরিহার করা

অনেকেই ফ্রুট বা ভেজিটেবল সালাদ খেতে ভালোবাসেন। যারা সালাদ খেতে পছন্দ করেন তারা সালাদে আলু ব্যবহার করবেন না। এছাড়াও সালাদ ড্রেসিংও অতিরিক্ত ক্যালোরি থাকে যা শরীরের মেদ বাড়ায়।

মাংসের চর্বিগুলো রান্নার আগেই ফেলে দেয়া

মাংস রান্না করার আগে অবশ্যই অতিরিক্ত চর্বি ফেলে দেয়া উচিত। কারন অতিরিক্ত চর্বি গুলো রান্নার পর ঝোলের সাথে মিশে যায় এবং তা শরীরে বাড়তি মেদ জমায়।

সূত্র: প্রিয় লাইফ

facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedin