রূপচর্চায় বেকিং সোডার ৫টি চমৎকার ব্যবহার

|রূপ-কেয়ার ডেস্ক|

আমাদের প্রায় সবার রান্নাঘরেই বেকিং সোডা থাকে। আর যদি রান্না ঘরে নাও থাকে তাহলেও খুব সহজেই প্রায় সব দোকানেই পাওয়া যায় বেকিং সোডা। এর দামও আছে হাতের নাগালের মধ্যেই। সহজলভ্য এই বেকিং সোডার আছে নানান উপকারিতা। প্রাত্যহিক জীবনের নানান কাজে বেকিং সোডা ব্যবহার করা যায়। বিশেষ করে সৌন্দর্য বৃদ্ধিতে বেকিং সোদা ব্যবহারের কোনো জুড়ি নেই। আসুন জেনে নেয়া যাক রূপচর্চায় বেকিং সোডা ব্যবহারের ৬টি দারুণ উপায় সম্পর্কে।

ডিওডোরেন্ট হিসেবে
বেশ গরম পড়েছে। আর এই গরমে অনেকেরই ঘামের দূর্গন্ধ হয়। ঘামের দূর্গন্ধ দূর করার জন্য ব্যবহার করতে পারেন বেকিং সোডা। বেকিং সোডার সাথে সামান্য পানি মিশিয়ে বগলের নিচে লাগিয়ে নিন। সারাদিন ঘামের দূর্গন্ধ থেকে মুক্তি পাবেন সহজেই।

দাঁত সাদা করতে
দাঁত হলদে হয়ে গেছে? আঙ্গুলে কিংবা ব্রাশে অল্প বেকিং সোডা লাগিয়ে ১ মিনিট দাঁত ব্রাশ করে নিন। দাঁত হয়ে যাবে ঝকঝকে সাদা।

স্ক্র্যাবার হিসেবে
ত্বকের মৃতকোষ দূর করে ত্বককে উজ্জ্বল ও মসৃণ করে তোলার জন্য ব্যবহার করা হয় স্ক্র্যাবার। আর দোকানের কেনা স্ক্র্যাবার ব্যবহার না করে বেকিং সোডা নিয়েই বানিয়ে নিতে পারবেন স্ক্র্যাবার। অল্প বেকিং সোডার সাথে সামান্য পানি মিশিয়ে পেস্ট বানিয়ে পুরো মুখে ঘষে নিন। ৫মিনিট পর পুরো মুখ ধুয়ে ফেলুন।

নখের হলুদ দাগ দূর করতে
রাঁধতে গেলে কিংবা অতিরিক্ত নেইলপলিশ ব্যবহারের ফলে অনেকেরই নখ হলুদ হয়ে যায়। নখের এই হলুদ দাগ দূর করতে চাইলে একটি টুথব্রাশে অল্প বেকিং সোডা লাগিয়ে নখে ঘষুন। তাহলে নখের হলদে ভাব পুরোপুরি চলে যাবে।

ব্রণ দূর করতে
যাদের ব্রণের উপদ্রব আছে তারা একটি বাটিতে এক চা চামচ বেকিং সোডা নিন। এবার এর সাথে অল্প একটু পানি মিশিয়ে পেস্ট বানিয়ে ফেলুন। এবার পুরো পেস্টটা মুখে আলতো করে লাগিয়ে ৩০ মিনিট পর হালকা গরম পানি দিয়ে পুরো মুখ ধুয়ে ফেলুন। এভাবে নিয়মিত লাগালে ব্রণের উপদ্রব কমে যাবে।

তথ্যসূত্র: প্রিয় লাইফ

facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedin