রোদেও থাকুন সুন্দর, সজীব ও ফ্রেশ

|রূপ-কেয়ার ডেস্ক|

চলছে গ্রীষ্মকাল। কাঠফাটা রোদে পুড়তে হবে সারাটা দিন। প্রচণ্ড রোদে একটু সতর্ক না হলে স্কিনের বারোটা বেজে যেতেই পারে। তবে প্রচণ্ড রোদেও অল্পকিছু নিয়ম মেনে চললে সূর্যরশ্মির ক্ষতিকর প্রভাব থেকে খুব সহজেই বেঁচে যেতে পারেন।

♣ ছেলে-মেয়ে যাদেরকেই রোদে কাজ করতে হয় সূর্যরশ্মির ক্ষতিকর প্রভাব থেকে বাঁচতে ফুল হাতের শার্ট বা কামিজ পরতে পারেন। অবশ্যই ফুল প্যান্ট পরতে হবে। হালকা রঙের চেয়ে গাঢ় রঙের পোশাক আপনাকে বেশি সুরক্ষা দিবে। যারা বাইক চালান অবশ্যই জুতা এবং হেলমেট ব্যবহার করুন।

♣ কাজের সময় ছাতা ব্যবহার করতে পারলে খুবই ভালো হয়। বিশেষ করে যাদের পায়ে হেটে কর্মস্থলে বা স্কুল-কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ে যেতে হয়। ছাতায় ঝামেলা মনে হলে মাথায় হ্যাট ব্যবহার করতে পারেন। খেয়াল রাখতে হবে, আপনার কান, নাক, কপাল ঢাকার জন্য হ্যাট এর চারপাশে যেন দুই-তিন ইঞ্চি ব্রিম থাকে।

♣ প্রতি দু ঘন্টা অন্তর অন্তর একবার করে ভাল ব্রান্ডের সানস্ক্রীন ক্রিম ব্যবহার করতে পারেন। তবে সানস্ক্রীন অবশ্যই এসপিএফ (sun protection factor) ৩০ অথবা এর বেশি হতে হবে। ক্রিমে এসপিএফ-এর মাত্রা যতো বেশি পরিমাণে থাকবে আপনার স্কীন ততো সুরক্ষিত থাকবে। রোদ থেকে এসে অবশ্যই সানস্ক্রীন লোশন ভালোভাবে তুলে ফেলুন।

♣ শরীরের যেসব জায়গা কাপড়ে ঢাকা নয় সেসব জায়গায় সানস্ক্রিন লাগাতে হবে। যথেষ্ট পরিমাণ সানস্ক্রিন লাগানো প্রয়োজন। যথাযথ ভাবে ব্যবহার করলে একজনের প্রতিবারে ১ আউন্স সানস্ক্রিন ব্যবহার করা উচিত।

♣ চোখকে ইউভি রশ্মির হাত থেকে রক্ষার জন্য সানগ্লাস পরুন। সেই সাথে হাল-ফ্যাশনের সাথেও মানিয়ে যাবে বেশ। প্রচণ্ড গরমে সুস্থির থাকতে সুতি ও হালকা রঙের কাপড় পরবেন।

♣ তারপরও রোদে ত্বক পুরে গেলে সানবার্ণের জন্য নিধারিত ফেসিয়াল বা আপনার রুপ বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন। এসব বিষয়ে পূর্ব প্রস্তুতি থাকলে রোদকেও জয় করতে পারবেন। প্রচণ্ড রোদেও থাকবেন চনমনে, ফ্রেস।

তথ্যসূত্র: পরিবর্তন.কম