শীতের দিনে সুস্থ ও সুন্দর থাকতে চাইলে রোজ রাতে পান করুন এই পানীয়টি

amitumi_winter-drink

শীত মানেই সর্দি, কাশি, জ্বর সহ নানান রকমের শীতকালীন অসুখ। একটুতেই অসুস্থ হয়ে পরা আর অনেকদিন অসুস্থ থাকা। শুধু তাই নয়, শীত এলেই চেহারা ও চুল হয়ে ওঠে নিষ্প্রাণ। আর দীর্ঘসময় অসুখে ভুগতে ভুগতে মেজাজটাও হয়ে পড়ে খিটখিটে। এই সমস্ত কিছুই কিন্তু দূর হতে পারে, যদি আপনি রোজ রাতে পান করেন দারুণ মজার এই পানীয়টি।

ভাবছেন, কী এমন পানীয়? এই অসাধারণ পানীয়তে আছে প্রকৃতির এমন কিছু অনন্য উপাদান, যা আপনাকে রাখবে রোগ বালাই থেকে দূরে। সহজে অসুখ হবে না, অসুখ হলেও দ্রুত সেরে যাবে, চেহারা থাকবে ফর্সা ও উজ্জ্বল। একই সাথে ভালো থাকবে মনটাও, স্ট্রেস মুক্ত ভাবে দারুণ একটা ঘুম হবে রাতে। চলুন, জেনে নিই ঝটপট রেসিপি।

যা লাগবে
গরুর দুধ এক গ্লাস
কাঁচা হলুদ ১ ইঞ্চি পরিমাণ
দারুচিনি গুঁড়ো ১/২ চা চামচ
মধু ১ টেবিল চামচ

যেভাবে করবেন
-কাঁচা হলুদ ছিলে টুকরো করে দুধের মাঝে দিয়ে দুধকে ফুটতে দিন।
-হলুদ থেকে দুধের মাঝে রঙ ছড়িয়ে গেলে ৫ থেকে ৭ মিনিট ফুটান। তারপর ছেঁকে গ্লাসে নিন। কাঁচ বা সিরামিকের গ্লাস/মগে নেবেন। ধাতব কিছুতে না।

-এরপর এই মিশ্রণে মেশান মধু ও দারুচিনি গুঁড়ো।
-কুসুম কুসুম গরম থাকতেই পান করুন। ঠাণ্ডা করে পান করবেন না।

মধুতে আছে প্রচুর পরিমাণে মিনারেল, ভিটামিন ও এনজাইম যা শরীরকে বিভিন্ন অসুখ বিসুখ থেকে রক্ষা করে এবং রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। এছাড়াও প্রতিদিন ঘুমের আগে এক চামচ মধু খেলে ঠান্ডা লাগা, কফ, কাশি ইত্যাদি সমস্যা কমে যায়। মধুর সাথে দারচিনির গুঁড়ো রক্তনালীর সমস্যা দূর করে এবং রক্তের খারাপ কোলেস্টেরলের পরিমাণ ১০% পর্যন্ত কমিয়ে দেয়। এছাড়াও দারুচিনির আছে জাদুকরী ক্ষমতা আপনার মন ভালো করে দেয়ার। হলুদ আপনার রক্তকে শুদ্ধ করে ও গায়ের রঙ উজ্জ্বল করে তোলে। নিয়মিত এই পানীয় পানে হয়ে উঠবেন ফর্সা। অন্যদিকে হলুদের অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল ও অ্যান্টি অক্সিডেনটে ভরপুর উপাদান সমুহের কারণে শক্ত হবে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা, এবং অন্যান্য মৌসুমি রোগও দ্রুত আরোগ্য হবে।

facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedin