সুন্দর ত্বকের জন্য যা খাবেন

|অনামিকা মৌ|

ত্বক ঠিক রাখতে আমরা আমরা এর উপর কতোই না পরীক্ষা চালাই। নানা প্রসাধনী আর হারবাল প্যাক দিয়ে রূপচর্চা করি সুন্দর ত্বক পাওয়ার ব্রতে। কিন্তু ত্বক যদি ভেতর থেকেই পুষ্টি না পায় তাহলে উপর দিয়ে যতোই চেষ্টা করি তেমন ফল পাওয়া যাবে না। ত্বককে সজীব সুন্দর আর পরিবেশের ক্ষতি থেকে বাঁচাতে অনেক খাবারই আছে যেগুলো ভেতর থেকে আমাদের পুষ্টি যোগায়। আজকে আপনাদের সেইসব পরিচিত কয়েকটি খাবারের কথা বলবো যেগুলো ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়িয়ে আপনাকে সজীব করে তোলে।

 

গাজর


এর মধ্যে রয়েছে বিটা ক্যারোটিন ও লাইকোপিন – এ দুটি উপাদান আপনাকে সূর্যের ক্ষতিকর রশ্মি থেকে রক্ষা করবে। একটি গবেষনায় পাওয়া গেছে আপনি যদি প্রতিদিন সকালে বাইরে বের হওয়ার সময় একগ্লাস গাজরের জুস পান করেন তাহলে সূর্যের ক্ষতিকারক রশ্মি থেকে ৫০ ভাগ কম ক্ষতি হবে।

কফি


প্রতিদিন এক কাপ কফি পানে আপনার স্কিন ক্যান্সার হওয়ার সম্ভাবনা অনেক কমে যায়। ইউরোপিয়ান জার্নালে প্রকাশিত ৯৩ হাজার নারীর উপর এক গবেষনায় দেখা গেছে প্রতিদিন এক কাপ কফি পানে তাদের স্কিন ক্যান্সারের সম্ভাবনা ১০ শতাংশে নেমে এসেছে। এবং প্রতিদিন আরো বেশি কফি পানে সেই হার আরো কমে যায়।

টমেটো


টমেটোর লাইকোপিন নামক উপাদান আপনার ত্বককে সানবার্ণ থেকে রক্ষা করে। প্রতিদিন টমেটো খেলে সূর্য রশ্মির ক্ষতি নিয়ে আপনাকে আর চিন্তা করতে হবেনা।

পেঁপে


পেঁপে প্রচুর ভিটামিন সি এর উৎস। যা আপনার ত্বকের কোষের ক্ষতিগ্রস্থ ডিএনএ মেরামত করে সজীব সুন্দর করে। আপনার বয়স কমিয়ে দিতে পেঁপে একটি অনন্য খাবার।

মটরশুটি


এতে রয়েছে প্রচুর পরিমান আইসোফ্লাভিন, যা একটি শক্তিশালী এন্টিঅক্সিডেন্ট। এটি ২০ বছর বয়সের পর যে বার্ধক্যের উপসর্গ দেখা দেয় তার বিরুদ্ধে কাজ করে।

ডিমের সাদা অংশ


ডিমের সাদা অংশে লুটিন নামক একটি উপাদান আছে, যা সুর্যের ক্ষতিকারক রশ্মি থেকে রক্ষা করবে, চোখের জ্যোতি ঠিক রাখবে, বার্ধক্য জনিত ত্বকের সমস্যা দূর করবে।