সুন্দর দাঁতের জন্য যা করবেন না

|নুসরাত নীলিমা|

সুন্দর দাঁত মুখের সৌন্দর্যের একটি অন্যতম পূবশর্ত। যার দাঁত ভাল তার হাসি ভাল, আর যার হাসি ভাল সে সবার কাছে আকর্ষনীয়। তবে সুন্দর দাঁত পেতে হলে আপনাকে কিছু বদঅভ্যাস ত্যাগ করতে হবে, যা মনের অজান্তেই আমরা করে থাকি। এইসব বদঅভ্যাসগুলো যে শুধু দাঁতের সৌন্দর্যই নষ্ট করে তা নয় ব্যাপক ক্ষতিও সাধন করে। আজকে আমরা এ সম্পর্কে জানবো এবং এগুলো বাদ দেয়ার চেষ্টা করবো।

দাঁত সুরক্ষায় যা যা করবেন না

১. দাঁত কিড়মিড় করা:

প্রাপ্ত বয়স্কদের মধ্যে এটি দেখা যায়। মানসিক অবসাদ বা অতিরিক্ত দু:শ্চিন্তার ফলে এটি হয়ে থাকে। এর ফলে দাঁতের ক্ষয় এবং মুখের অবয়ব নষ্ট হয়।

২. ঠান্ডা পানিয় এবং বরফ চর্বন:

অনেকেই দাঁত দিয়ে বরফ চর্বন করতে পছন্দ করেন। এটা দাঁতের জন্য খুবই ক্ষতিকর। ঠান্ডা পানিয় দাঁতের এনামেল ক্ষয় করে ফ্র্যাক্‌চার তৈরী করে। রঙিন পানিয় দাতের স্বাভাবিক রঙকে নষ্ট করে দেয়।

৩. খুব জোড়ে ব্রাশ করা:

খুব জোড় দিয়ে ব্রাশ করলে দাঁতের এনামেল ক্ষয় হয়ে যায় এবং মাড়িও ক্ষতিগ্রস্থ হয়। যেসব প্রাপ্ত বয়স্করা খুব জোড় দিয়ে ব্রাশ করে তারা যেকোন সময় দাঁতের মারাত্মক ক্ষতির সম্মুখিন হতে পারে।

৪. দাঁত দিয়ে ছিপি খোলা:

অনেকেই দাঁত দিয়ে বোতলের ছিপি বা প্লাস্টিকের প্যাকেট খোলেন। দাঁতকে মজবুত রাখতে হলে এই অভ্যাসটি ত্যাগ করতে হবে।

৫. বিভিন্ন বস্তু চর্বন করা:

অনেকে কলম,পেন্সিল বা নখ দাত দিয়ে চর্বন করে। এর ফলে দাঁতের উপরিভাগ নষ্ট হয়ে যায় এবং স্বাস্থ্যের জন্যও ক্ষতিকর।

৬. ঠিক মতো পরিষ্কার না করা:

প্রাপ্ত বয়স্কদের মধ্যে অনেকেই ঠিক মতো দাঁত পরিষ্কার করে না। হয়তো দুইবেলা ব্রাশ করে ঠিকই, কিন্তু প্রতিবার খাবারের পর ঠিকমতো কুলি করে না। এতে দাঁতের ফাঁকে ময়লা জমে ক্ষয় করে দাঁতের স্বাভাবিক সৌন্দর্যকে ব্যহত করে।

৭. অতিরিক্ত ফাস্টফুড এবং মিষ্টি জাতীয় খাবার:

এই সব খাবার দাতের ক্ষয় এবং বিভিন্ন দন্তরোগ তৈরীতে প্রধান ভূমিকা পালন করে।

দাঁতের ক্ষতির জন্য দায়ী এইসব খারাপ অভ্যাসগুলো আমাদের অবশ্যই বর্জন করা উচিত। কারণ সুস্থ্য, মজবুত ও সুন্দর দাঁতই পারে আপনার সৌন্দর্যকে পরিপূর্ণ করতে।

কৃতজ্ঞতা
ডা: তপায়ন সরকার
ডেন্টিস্ট
বাংলাদেশ ডেন্টাল কলেজ ও হাসপাতাল

facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedin